MEET OUR CREATIVES

authors, illustrators & translators

অদ্রিজা ঘোষ

সাহিত্যর ছাত্রী ও আঁকিয়ে অদ্রিজা ঘোষের জন্ম ও বেড়ে ওঠা ভারতের কলকাতায়। চার বছর ধরে তিনি শিশুতোষ বই অলংকরণ করছেন। ময়ূরপঙ্খি ছাড়াও তাঁর অলংকৃত বই প্রকাশিত হয়েছে হারপার কলিনস, প্রথম বুকস এবং কারাডি টেলস থেকে। পাশাপাশি অদ্রিজা মুরাল ডিজাইনও করেন।  তিনি বর্তমানে গ্রাফিক ডিজাইনার হিসেবে প্রথম বুকসে কর্মরত আছেন। ময়ূরপঙ্খি থেকে প্রকাশিত তাঁর অলংকৃত উল্লেখযোগ্য বই ‘বাঘ ও পিঁপড়ের গল্প’, ‘পিঁপড়ে ও ডাইনোসরের গল্প’ প্রভৃতি।

এস এম রাকিবুর রহমান

এস এম রাকিবুর রহমান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চারুকলা অনুষদের ছাপচিত্র বিভাগ থেকে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেছেন।  তাঁর অলংকৃত ময়ূরপঙ্খির বই ‘মেহনতে সোনা ফলে’, ‘সূর্য রাজার রাজ্যে’, ‘ঝুমি এল চিড়িয়াখানায়’, ‘দাঁতপরীর উপহার’ প্রভৃতি।

টুম্পা বড়ুয়া

হিশাববিজ্ঞানে স্নাতকোত্তর টুম্পা বড়ুয়া ঢাকা থেকে পরিচালিত মধুপোক সম্পাদনা ও অনুবাদ সংস্থার সদস্য।  ময়ূরপঙ্খি থেকে প্রকাশিত তাঁর অনূদিত বই ‘My Travel Diary’।

ধ্রুব এষ

স্বনামধন্য প্রচ্ছদশিল্পী ধ্রুব এষের জন্ম সুনামগঞ্জের উকিলপাড়ায়, ১৯৬৭ সালে। বিশ হাজারের বেশি বইয়ের প্রচ্ছদ এঁকেছেন। এছাড়া গল্প, উপন্যাস আর ছড়াও লেখেন। তাঁর লেখা বইয়ের সংখ্যা সত্তরের বেশি। তাঁর ঝুলিতে আঁকিয়ে এবং লেখক হিসেবে পুরস্কারের সংখ্যাও কম নয়। ময়ূরপঙ্খি থেকে প্রকাশিত তাঁর উল্লেখযোগ্য বই ‘রংপাতার গাছ’, ‘বুড়োর লম্বা দাড়ির কাহিনী’ এবং ‘আমার বাঘ মামাই’।

নূরুস সাফা অনিক

নূরুস সাফা অনিকের জন্ম ১৯৮৭ সালে।  জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংরেজি সাহিত্য নিয়ে পড়েছেন। বর্তমানে একটি দৈনিক পত্রিকায় কাজ করছেন।  পাশাপাশি খবরের কাগজ এবং শিশু-কিশোরদের ম্যাগাজিনের জন্যও নিয়মিত আঁকাআঁকি করেন।  তাঁর অলংকরণে ময়ূরপঙ্খি প্রকাশিত বই ‘পরমা হারিয়ে গিয়েছিল’।

মমতাজ লতিফ

মমতাজ লতিফের জন্ম ১৯৪৫ সালে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সমাজবিজ্ঞানে স্মাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। এক সময় ইউনিসেফের শিক্ষা ও স্বাস্থ্য বিভাগের শিশু যত্ন ও বিকাশ নিয়ে কাজ করেছেন।  তাঁর বইয়ের মধ্যে অন্যতম: ‘শিশুর মন ও শিক্ষা’, ‘মানবিক শিক্ষার খোঁজে’, ‘গল্পের একদিন’, ‘সূর্য রাজার রাজ্যে’ এবং ‘ছবি ও পড়া’।

মেহেদী হাসান

মেহেদী হাসান ঢাকা থেকে পরিচালিত মধুপোক সম্পাদনা ও অনুবাদ সংস্থার সদস্য। ‘বাংলাদেশে পাকিস্তানের মানবাধিকার লঙ্ঘন: কয়েকটি জবানবন্দি’, ‘রিকশাকন্যা’ ও ‘নাসিরুদ্দিন হোজ্জার গল্প’ তাঁর অনূদিত গ্রন্থের মধ্যে অন্যতম।

রুশিদান ইসলাম

রুশিদান ইসলাম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে স্নাতোকোত্তর এবং অস্ট্রেলিয়ান ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি থেকে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেছেন। কিছুকাল জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা এবং বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজে (বিআইডিএস) গবেষণা পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। বর্তমানে বাংলাদেশ ব্যাংকের বোর্ড অব ডিরেক্টর্সের সদস্য।  ‘লাস্ট বেঞ্চের ছেলেটি’, ‘কালো দ্বীপের আজব হাসপাতাল’, ‘ছোটমণিদের ছবিতে ছড়া’ প্রভৃতি তাঁর উল্লেখযোগ্য বই।

শামীম আহমেদ

শামীম আহমেদ নতুন নতুন জায়গার গল্প শুনতে আর ঘুরে বেড়াতে ভালোবাসেন। সেই গল্পগুলোই লেখা ও আঁকার চেষ্টা করেন। আঁকাআঁকির পাশাপাশি স্থাপত্যচর্চা করেন ‘স্টুডিও ঢাকা’ নামক প্রতিষ্ঠানে। একদিন ছোট ছোট স্কুল বানানোর স্বপ্ন দেখেন তিনি। ‘নদীর গল্প’, ‘বনভোজন’, ‘নিলু’ প্রভৃতি তাঁর অংলকরণে প্রকাশিত ময়ূরপঙ্খির বই।

সব্যসাচী মিস্ত্রী

সব্যসাচী মিস্ত্রীর জন্ম ১৯৮০ সালে। আদি নিবাস বরিশাল। দীর্ঘদিন ধরে শিশুসাহিত্যের অলংকরণ করছেন। এছাড়া বইয়ের প্রচ্ছদ, বিজ্ঞাপন, অ্যানিমেশন, গ্রাফিক ডিজাইনের কাজও নিয়মিত করেন।  ‘যত হালুম চিৎপটাং’, ‘বুড়িমা’, ‘প্রকৃত শিষ্য’, ‘মনা ও মেছোভূত’ তাঁর বইয়ের মধ্যে অন্যতম।

হেলাল উদ্দিন আহমেদ 

হেলাল উদ্দিন আহমেদের জন্ম ফেনীতে, ১৭ জুলাই ১৯৬০ সালে। তিনি যুক্তরাজ্যের আলস্টার বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সরকারি আর্থিক ব্যবস্থাপনা বিষয়ে মাস্টার্স ডিগ্রি এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে জনপ্রশাসনে দুর্নীতিবিষয়ক গবেষণার জন্য পিএইচডি অর্জন করেন। ১৯৯৮ থেকে ২০০৩ সাল পর্যন্ত সরকারি প্রকাশনা ‘বাংলাদেশ কোয়ার্টারলি’ ও ‘নবারুণ’ পত্রিকা সম্পাদনা করেছেন।  তাঁর প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা পনেরো।  

সুনহাবা বিজনার

জার্মান শিল্পী সুনহাবা বিজনার বর্তমানে ডোমিনিক রিপাবলিকে বসবাস করছেন। তিনি দ্বিমাত্রিক অ্যানিমেশন, কমিকস এবং বাস্তবধর্মী ছবির কাজ করেন। তবে শিশুসাহিত্যের অলংকরণের প্রতিই তাঁর বেশি আগ্রহ। তাঁর অলংকৃত ময়ূরপঙ্খির বই ‘ইঁদুর বিড়াল আর শেয়ালের গল্প’।

আখতার হুসেন

বাংলাদেশের শিশুসাহিত্যের অন্যতম পুরোধা আখতার হুসেনের জন্ম ১৯৪৫ সালের ১ নভেম্বর। তাঁর পেশাগত জীবনের শুরু সাংবাদিকতা দিয়ে; কাজ করেছেন দেশের প্রধান প্রধান পত্রিকায়। ছোটদের জন্য মৌলিক গ্রন্থ রচনার পাশাপাশি সম্পাদনা করেছেন বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ সংকলন। শিশুসাহিত্যে অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ পেয়েছেন বাংলা একাডেমি পুরস্কার, শিশু একাডেমি পুরস্কারসহ বেশ কিছু সম্মাননা।  ময়ূরপঙ্খি থেকে প্রকাশিত তাঁর বইয়ের মধ্যে ‘উপদেশমূলক গল্প’ গ্রন্থমালা, ‘বুড়িমা’, ‘রাজকন্যা রুপালি’, ‘ধূর্ত উজির’ প্রভৃতি উল্লেখযোগ্য।

কাজী তাহমিনা

কাজী তাহমিনার জন্ম সিলেটে, বাড়ি ফরিদপুর। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ইংরেজি বিভাগের ছাত্রী। এখন পড়াচ্ছেন ইস্টার্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে। পড়তে, পড়াতে, ঘুরতে, খেতে আর জমিয়ে আড্ডা দিতে ভীষণ ভালোবোসেন। দুই মেয়ে ইনিয়ানা আর ইরাবতীর জন্যই শিশুতোষ লেখালেখির শুরু। ময়ূরপঙ্খি থেকে প্রকাশিত তাঁর বই ‘ছড়ায় ছড়ায় শিখি’, ‘প্রজাপতির গল্প’ এবং ‘রাজামশাই আর খেলার মাঠের গল্প’।

ড. মোহাম্মদ হাননান

ড. মোহাম্মদ হাননান স্বনামধন্য ইতিহাসবিদ। ‘বাংলাদেশের ছাত্র আন্দোলনের ইতিহাস’ (দশ খণ্ড), ‘বাঙালির ইতিহাস’, ‘মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস’, ‘বাঙালি মুসলমানের নাম ও পদবী’, ‘ফতোয়ার ইতিহাস’, ‘বাংলা ও বাঙালি মুক্তিসংগ্রামের কিশোর ইতিহাস’, ‘বাংলাদেশের সামরিক ইতিহাস’ এবং ‘হাজার বছরের বাংলাদেশ: ইতিহাসের অ্যালবাম’ তাঁর অন্যতম গ্রন্থ।

নাজিয়া জাবীন

লেখালেখি শুরু করেছেন স্কুলের দেয়াল পত্রিকায়। ঘাসফড়িং, প্রজাপতির রঙিন পাখা, বৃষ্টির টুপটাপ শব্দ ও একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধ তাঁর প্রিয় বিষয়। তাঁর লেখা শিশুতোষ বইয়ের সংখ্যা ত্রিশের বেশি।  তিনি ‘জল পড়ে পাতা নড়ে’ শিশুতোষ পত্রিকার সম্পাদক এবং স্পর্শ ব্রেইল প্রকাশনার প্রধান উদ্যোক্তা। বর্তমানে সিসিমপুর, ব্র্যাক, সেভ দি চিলড্রেন এবং রুম টু রিডের সঙ্গে যুক্ত।  ময়ূরপঙ্খি থেকে প্রকাশিত তাঁর উল্লেখযোগ্য বই ‘সাগর তীরে’, ‘তরু’, ‘বনভোজন’ প্রভৃতি।

বহ্নি বেপারী

বহ্নি বেপারীর জন্ম পিরোজপুরে, ১৯৮০ সালের ১৪ ডিসেম্বর। ছায়ানটের সংস্কৃতি-সমন্বিত শিশুশিক্ষা কার্যক্রম নালন্দার শিক্ষাকর্মী হিসেবে তিনি শিশুদের উপযোগী শিক্ষা উপকরণ তৈরি করেন। এর মধ্যে তেরোটি বই আকারে প্রকাশিত হয়েছে। শিশুসাহিত্যে অনন্য অবদানের জন্য পেয়েছেন মীনা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড ২০১৭।  তাঁর উল্লেখযোগ্য বই ‘ছবির ভূত’, ‘নদীর গল্প’ এবং ‘মেঘের কোলে রোদ হেসেছে’।

মানব

চিত্রশিল্পী মানবের জন্ম ১৯৮৯ সালে। বাড়ি সাতক্ষীরা। তিনি পড়তে, আঁকতে ও লিখতে ভালোবাসেন।  তাঁর অলংকৃত অন্যতম বই ‘প্রজাপতির গল্প’।

মৌমিতা শিকদার

চারুকলার ছাত্রী মৌমিতা শিকদার কর্মজীবন শুরু করেছেন দৈনিক পত্রিকায় কার্টুন আঁকার মধ্য দিয়ে। পরে রুম টু রিডের সাথে কাজ করেছেন। বর্তমানে তিনি সিসিমপুরের সাথে যুক্ত। ছবি আঁকার পাশাপাশি মৌমিতা গান গাইতে এবং দোতারা বাজাতেও ভীষণ ভালোবাসেন। তাঁর অলংকৃত ময়ূরপঙ্খির বই ‘সাগর তীরে’।

রাজীব দত্ত

রাজীব দত্ত ছবি আঁকেন ও লেখেন।  তাঁর প্রকাশিত কবিতার বই ‘সবানের বন’ ও ‘ফরসা একটা ফল গড়িয়ে যাচ্ছে’। তাঁর রচনা ও অলংকরণে ময়ূরপঙ্খি থেকে প্রকাশিত দ্বিভাষিক বই ‘ছুটির খাতা’ ।

শুচিস্মিতা

শুচিস্মিতা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চারুকলা অনুষদ থেকে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেছেন। পেশায় গেম ডিজাইনার। তাঁর লেখার শুরু অবশ্য অনেক আগে, বাবার হাত ধরে। অরিগামি বানাতেও খুব পছন্দ করেন। যেভাবেই হোক, ছোটদের জন্য কিছু করতে পারলে তাঁর আনন্দের সীমা থাকে না। 

সুরাইয়া বেগম

সুরাইয়া বেগম ইংরেজিতে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেছেন। তিনি ঢাকা থেকে পরিচালিত মধুপোক সম্পাদনা ও অনুবাদ সংস্থার সদস্য। ঘোরাঘুরি করতে এবং তা নিয়ে লিখতে পছন্দ করেন। ‘ভ্রমণগুরু’ নামক ওয়েবসাইটে তাঁর মৌলিক রচনা এবং অনুবাদ নিয়মিত প্রকাশিত হয়। ময়ূরপঙ্খি থেকে প্রকাশিত তাঁর অনূদিত বই: ‘রহস্যময় খেলানার বাক্স’, ‘সামুদ্রিক প্রাণী’ এবং ‘বন্যপ্রাণী’।

হামজা কামাল মোস্তফা

মো: হামজা কামাল মোস্তফা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতায় এবং ভারতের নয়াদিল্লিস্থ সাউথ এশিয়ান ইউনিভার্সিটি থেকে সমাজবিজ্ঞানে স্নাতকোত্তর করেছেন। বিভিন্ন আর্ন্তজাতিক সম্মেলনে গণমাধ্যম ও রাজনীতি সংশ্লিষ্ট বিষয়ে তাঁর গবেষণাপত্র উপস্থাপিত হয়েছে। তিনি মধুপোক সম্পাদনা ও অনুবাদ সংস্থার সদস্য। এছাড়া ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশের গণমাধ্যম ও যোগাযোগ বিভাগে খন্ডকালীন শিক্ষকতায় নিয়োজিত। তাঁর অনূদিত ময়ূরপঙ্খির উল্লেখযোগ্য বই: ‘তুষারকন্যা’ এবং ‘সিন্ডারেলা’।

সানজয়িা জাফরীন চৌধুরী

সানজয়িা জাফরীন চৌধুরীর জন্ম চটগ্রামরে মীরসরাই। চটগ্রামরে প্রমিয়িার বশ্বিবদ্যিালয় থকেে ইংরজেি সাহত্যিে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করছেনে। তনিি মধুপোক সম্পাদনা ও অনুবাদ সংস্থার সদস্য। তাঁর ভালোবাসার অপর নাম রবীন্দ্রনাথ।  ময়ূরপঙ্খি থকেে প্রকাশতি তাঁর অনূদতি অন্যতম বই ‘পৃথবিীর কানরে খোঁজ।

ইশরাত জাহান শাইরা

ইশরাত জাহান শাইরার জন্ম ঢাকায়, ১৯৯৬ সালে। ইউনিভার্সিটি অব ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি থেকে গ্রাফিক ডিজাইন অ্যান্ড মাল্টিমিডিয়া বিষয়ে স্নাতক সম্পন্ন করেছেন। বর্তমানে একটি বিজ্ঞাপনী সংস্থায় ভিজুয়ালাইজার হিসেবে কর্মরত। ফ্রিল্যান্স গ্রাফিক ডিজাইনার ও চিত্রশিল্পী হিসেবে তিনি বিভিন্ন সংস্থা ও শিল্পীর সাথেও কাজ করছেন।  ‘পুপু এবং আর ড্রয়িং খাতার ভূতেরা’, ‘নীল কুমিরের বাচ্চা’, ‘ভূত দেখা’, ‘দাদুর হাতে জাদুর লাঠি’ প্রভৃতি তাঁর অলংকৃত উল্লেখযোগ্য বই।

ঝর্না রহমান

ঝর্না রহমানের লেখালেখির শুরু ১৯৮০ দশকে। ১৯৮৫ সালে প্রকাশিত হয় প্রথম গল্পগ্রন্থ ‘কালঠুঁটি চিল’। গল্পের পাশাপাশি কবিতা, প্রবন্ধ-নিবন্ধ, ভ্রমণসাহিত্য, শিশুসাহিত্য, নাটকের জগতেও তাঁর স্বচ্ছন্দ বিচরণ। চারটি সম্পাদনা গ্রন্থসহ এ পর্যন্ত প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা পঞ্চাশ। তাঁর একাধিক গল্প ও কবিতা ইংরেজিতে অনূদিত হয়েছে এবং দেশে ও দেশের বাইরে বিভিন্ন নামি সংকলনে প্রকাশিত হয়েছে। ময়ূরপঙ্খি প্রকাশিত ‘চাররঙা গল্প’ গ্রন্থমালা ছাড়াও তাঁর রচিত উল্লেখযোগ্য বই ‘জাদুবাস্তবতার দুই সখী’, ‘নিমিখের গল্পগুলো’, ‘পিতলের চাঁদ’, ‘জল ও গোলাপের ছোবল’ প্রভৃতি।

ড. রফিকুল ইসলাম

ড. রফিকুল ইসলাম একাধারে মননশীল লেখক, ভাষাতাত্ত্বিক, নজরুল বিশেষজ্ঞ ও স্বনামধন্য শিক্ষাবিদ। তিনি ১৯৫৭ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে যোগ দেন এবং পরবর্তীতে এই বিভাগের প্রথম নজরুল অধ্যাপকের দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নজরুল-গবেষণা কেন্দ্রের প্রথম পরিচালক হিসেবেও নিয়োজিত ছিলেন। অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম বাংলা একাডেমি প্রকাশিত ‘নজরুল রচনাবলি’ এবং নজরুল ইউস্টিটিউট প্রকাশিত ‘নজরুল সমগ্র’ সম্পাদনা পরিষদের সভাপতি। ময়ূরপঙ্খি প্রকাশিত তাঁর রচিত বই ‘বাংলাভাষা আন্দোলন’ এবং ‘একুশের শহীদেরা বাংলাভাষার শহীদেরা’ এবং ‘আমার ভাষা’।

নাসরিন সুলতানা শীলা

শিশুকাল থেকেই গল্পের বইয়ের পোকা। মনোবিজ্ঞানে স্মাতকোত্তর সম্পন্ন করার পরও বাচ্চাদের বই পড়ায় তাঁর আগ্রহের কমতি নেই। তিনি ঢাকা থেকে পরিচালিত মধুপোক সম্পাদনা ও অনুবাদ সংস্থার সদস্য।  ময়ূরপঙ্খি থেকে প্রকাশিত তাঁর অনূদিত বইয়ের মধ্যে অন্যতম ‘চিতা আর ছাগল’, এবং ‘On the Seashore’।

মঞ্জু সরকার

কথাশিল্পী মঞ্জু সরকার ছোটগল্প, উপন্যাস ও শিশুসাহিত্য রচনায় কৃতিত্বের স্বাক্ষর রেখেছেন। এ পর্যন্ত প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা পঞ্চাশের বেশি। সাহিত্যে সামগ্রিক অবদানের জন্য ১৯৯৮ সালে পেয়েছেন বাংলা একাডেমি পুরস্কার। এছাড়া ফিলিপস, আলাওল ও অগ্রণী ব্যাংক-শিশু একাডেমি শিশুসাহিত্য পুরস্কারসহ আরো অনেক সম্মাননাও রয়েছে তাঁর ঝুলিতে। তিনি ২০০৬ সালে আইওয়ার ইন্টারন্যাশনাল রাইটিং প্রোগ্রামে অংশ নিয়েছেন। ‘তমস’, ‘মৃত্যুবাণ’ প্রভৃতি তাঁর বিখ্যাত বই।  তাঁর রচিত শিশুসাহিত্যের মধ্যে অন্যতম ‘ছোট্ট এক বীরপুরুষ’, ‘রাজাকার পালায়’, ‘ভূত দেখা’, ‘অপুর দাদুগাছ’ প্রভৃতি।

মাহফুজ রহমান

মাহফুজ রহমান একাধারে লেখক, অলংকরণ শিল্পী এবং সাংবাদিক। অ্যানিমেশন ফিল্ম বানিয়ে পেয়েছেন আন্তর্জাতিক পুরস্কার। তাঁর লেখা মূলত শিশুকিশোরদের জন্য। গল্পের পাশাপাশি ছড়াও তাঁর বড় ভালোবাসার ক্ষেত্র। বর্তমানে প্রথম আলো পত্রিকার শিশুতোষ ক্রোড়পত্র ‘গোল্লাছুট’ সম্পাদনা করছেন। এর আগে সম্পাদনা করেছেন জনপ্রিয় রম্য ক্রোড়পত্র ‘রস+আলো’। ময়ূরপঙ্খি থেকে প্রকাশিত তাঁর জনপ্রিয় বই ‘গুল্টু’।

রজত

রীশাম শাহাব তীর্থ

রীশাম শাহাব তীর্থের জন্ম ও বেড়ে ওঠা ঢাকায়। বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্থাপত্যবিদ্যায় স্নাতক শেষ করে পেশায় এখন স্থপতি। এছাড়া বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক ও সাময়িকপত্রের জন্য ছবি আঁকার পাশাপাশি মুরাল ডিজাইন, কার্টুন, কমিক্স, ক্যারেক্টার ডিজাইন প্রভৃতির সাথে যুক্ত। ভালোবাসেন গান, বই, সিনেমা, ভ্রমণ আর নিজ কন্যার সাথে সময় কাটাতে। ময়ূরপঙ্খি থেকে প্রকাশিত তাঁর বই ‘বাবুইবেলা’।

শ্রেয়া সেন

খুব ছোটবেলায় রুশদেশের ছবির বইগুলো গোগ্রাসে গিলতে গিলতে আর দেওয়ালে ছবি আঁকতে আঁকতে শ্রেয়া সেনের যা হওয়ার ঠিক তাই হলো। আরেকটু বড় হলে পড়তে গেলেন অ্যানিমেশন ফিল্ম ডিজাইন। শিশুতোষ প্রকাশনীতে গ্রীষ্মকালীন ইনটার্নশিপ করতে গিয়ে বুঝলেন এই কাজটাই তিনি সারাজীবন করতে চান। কোনো কথাবার্তা বা লেখাকে বিশ্লেষণ করা, কমিক্স, হাস্যরস, মানুষকে নকল করা, চা বানানো আর পান করা এসব শ্রেয়ার আগ্রহের বিষয়। বিভিন্ন রেস্তোরাঁয় বসে আঁকাআঁকি তাঁর খুব পছন্দ। ‘Neelu's Big Box এবং ‍‘Akkad Bakkad’ তাঁর অলংকৃত অন্যতম বই।

সারা তৌফিকা

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে গ্রাফিক্স ডিজাইনের শিক্ষার্থী সারা তৌফিকা গ্রাফিক্সের পাশাপাশি ইলাস্ট্রেশনেও সমান আগ্রহী।  শিশুতোষ প্রকাশনা ‘ইকরি মিকরি’র নিয়মিত শিল্পী। বর্তমানে ‘সিসিমপুরে’ও কাজ করছেন।  ময়ূরপঙ্খি প্রকাশিত তাঁর অংলকৃত বইয়ের মধ্যে অন্যতম: ‘অপুর দাদুগাছ’, ‘অহংকারী তোতা’, ‘কবতিার জোরে মন্ত্রী’, ‘ভোজের ভোজবাজি’ এবং ‘রংপাতার গাছ’।

সুমৌলি দত্ত

সুমৌলি দত্তের জন্ম ভারতের কলকাতায়, ১৯৯০ সালে। সংবাদপত্র ও ম্যাগাজিনসহ ভারতের বিভিন্ন নামি প্রতিষ্ঠানের সাথে কাজ করেছেন। বর্তমানে তিনি একটি সংস্থায় ভিজুয়াল মার্চেন্ডাইজার হিসেবে নিয়োজিত রয়েছেন। ময়ূরপঙ্খি প্রকাশিত তাঁর বইয়ের মধ্যে অন্যতম: ‘আমার বাঘ মামাই’ এবং ‘হুলো বিড়াল আর টুলো বিড়াল’।

  • Facebook
  • Twitter
  • Pinterest
  • Instagram